প্রাকৃতিক উপায়ে গরমে পা ঘামানো ও দুর্গন্ধ থেকে চিরমুক্তি

পা ঘামানো ও দুর্গন্ধ থেকে চিরমুক্তি

আসছে গরম যারা সারাদিনভর সু-জুতা পরে থাকেন তাদের অনেকেরই পা ঘামিয়ে থাকে এবং তা থেকে দুর্গন্ধ বের হয় যা সবার কাছেই বিরক্তকর লাগে। এছাড়াও পায়ের আঙ্গুলের ফাঁকে ফাঁকে ঘাম জমিয়ে চর্মরোগের সৃষ্টিও হতে পারে। এই ঘাম ও দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদানের সাহায্যে দূর করা সম্ভব এবং তা কিভাবে দূর করবেন তা বিস্তারিতভাবে জেনে নিন।

প্রাকৃতিক উপাদানের সাহায্যে পা ঘামানোর সমস্যা দূর করার উপায়ঃ

প্রাকৃতিক উপাদানের সাহায্যে কিভাবে পা ঘামানোর সমস্যা দূর করা যায় নিচে তার বিভিন্ন উপায় দেয়া হল। যদি আপনি নির্দেশাবলী ভালো করে নিয়ম-মাফিকভাবে ব্যবহার করেন তবে পা ঘামানো ও দুর্গন্ধের সমস্যা দূর করা একান্তভাবে সম্ভবপর।

পা ঘামানোর সমস্যা দূর করার বিভিন্ন উপায় সমূহঃ

লেবুর রসঃ

আপনি এমন একটি বড় পাত্র নিন যাতে আপনার পা ডুবিয়ে রাখা যায়। ঐ পাত্রে ৩টি লেবু চটকে রস বের করুন এবং তার সাঙ্গে হালকা গরম পানি মিশিয়ে নিন। এখন আপনি পরিষ্কার পানি দিয়ে আপনার পা ধুঁয়ে নিয়ে লেবুর রস যুক্ত পানির পাত্রে পা ডুবিয়ে রাখুন এবং ১৫-২০ মিনিট রাখার পরে নরম তোয়াল বা গামছা দিয়ে পা মুছে নিন। এভাবে নির্দেশ অনুসারে করতে পারলে আপনার পা-ঘামানো ও  দুর্গন্ধ দূরীভূত হবেই।

তেঁতুলের রসঃ

আপনি পায়ের ঘাম-এর দুর্গন্ধ দূর করতে পরিমাণমত পাকা তেঁতুল অল্প গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখুন এবং কিছু সময় পর ১০০ মিলি লিটার পানিতে ভালো করে মিশ্রণটি মিশিয়ে তা দিয়ে পা পরিষ্কার করুন। এতে ঘামের দুর্গন্ধ থেকে উপকৃত হবেন।

ভিনেগারঃ

একটি পাত্রে ৫০০ মিলি লিটার গরম পানি নিয়ে তার মধ্যে ৩ কাপ ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এই ভিনেগার মিশ্রিত পানির মধ্যে পা ডুবিয়ে রাখুন এবং ১৫ মিনিট পর পানি থেকে পা উঠিয়ে নরম তোয়াল বা গামছা দিয়ে মুছে নিন। এর ফলে আপনার পা ঘামানো এবং ঘামের দুর্গন্ধ দূর হবে।

লবণ ও পানিঃ

একটি পাত্রে হালকা গরম পানি নিয়ে তার মধ্যে লবণ মিশিয়ে পা ডুবিয়ে রাখুন এবং ১৫ মিনিট পর পা উঠিয়ে নরম তোয়াল বা গামছা দিয়ে মুছে ফেলুন। তাতে আপনার পা কম ঘামাবে।

বেকিং সোডাঃ
একটি ছোট্র পাত্রে ৩০০ মিলি লিটার পানি নিয়ে তার মধ্যে ৩ টেবিল চা-চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন এবং ভালো করে মিশ্রণটি মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করুন। সেই পেস্ট আপনার পায়ের পাতায় ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন। এভাবে আধা ঘন্টা ম্যাসাজ করার পর মাইল্ড সাবান এবং ঠাণ্ডা পানি দিয়ে পা ধুঁয়ে ফেলুন (সাবান না থাকলে প্রয়োজন নেই)।

উপরিউক্ত প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহারের কোন পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া নেই এবং হাত ঘামানোর জন্য এই একই প্রক্রিয়া প্রযোজ্য
বি:দ্র:- আপনি বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহারের করেও যদি আপনার পা-ঘামানো ও দুর্গন্ধ দূরীভূত না হয় তবে অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

“ধন্যবাদ”

Be the first to comment

Leave a Reply