মহিলাদের জন্য অস্থায়ী (দীর্ঘমেয়াদী) জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি (আইইউডি)

মহিলাদের অস্থায়ী জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি (আইইউডি)

আইইউডি পদ্ধতি এটি শুধুমাত্র একটি সন্তান আছে এমন মহিলাদের জন্য দীর্ঘমেয়াদী, অস্থায়ী ক্লিনিক্যাল পদ্ধতি সেবা এবং এ পদ্ধতি ১০ বছরের জন্য কার্যকর। এটি মহিলাদের জরায়ুতে স্থাপন করা হয়। বর্তমানে বাংলাদেশে কপার-টি ৩৮০A ব্যবহার করা হয়।

আইইউডি ব্যবহারের সুবিধা সমূহঃ

ক)  এ পদ্ধতি ১০ বছরের জন্য কার্যকর। স্বাভাবিক প্রসবের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অথবা সিজারিয়ান অপারেশনের সময় আইইউডি গ্রহণ করা যায়।

খ)  এটি প্রয়োগ করা সহজ, মাত্র কয়েক মিনিটে প্রয়োগ করা হয়।

গ)  এটি দীর্ঘমেয়াদী ও সহজলভ্য।

ঘ)  যখন ইচ্ছা ক্লিনিক/ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে খুলে নেয়া যায়।

ঙ)  শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন এমন মহিলারাও ব্যবহার করতে পারেন।

চ)  পদ্ধতি হিসেবে কার্যকর এবং পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া কম।

ছ)  একটি সন্তান থাকলে এ পদ্ধতি গ্রহণ করা যায়।

জ)  সহবাসের সময় স্বামী/স্ত্রীর কোনো সমস্যা হয় না।

আইইউডি ব্যবহারের অসুবিধা সমূহঃ

ক)  আইইউডি প্রয়োগের পর প্রথম কয়েক মাস তলপেট ব্যথা হতে পারে।

খ)  ফোঁটা ফোঁটা রক্তস্রাব হতে পারে।

গ)  মাসিকের পর নিয়মিত সুতা পরীক্ষা করতে হয়।

ঘ)  এটি প্রয়োগ, খোলা ও ফলো-আপ- এর জন্য ক্লিনিকে যেতে হয়।

বি:দ্র:- যেকোন জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি সেবা গ্রহণের পূর্বে অবশ্যই অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

“ধন্যবাদ”

Be the first to comment

Leave a Reply