লেবুর রসের উপকারিতা

ব্রণ দূরীকরণে লেবুর রসের উপকারিতা ও ব্যবহার বিধি

ত্বকের যত্ন

ব্রণ ত্বকের সৌন্দর্য অনেকাংশে বিনষ্ট করে দেয়। সচারাচার কিশোর বয়সেই ব্রণের পাদুর ভাব বেশি দেখা যায়। সকল বয়সের মানুষই ব্রণের সমস্যা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন। তাই ব্রণ দূরীকরণে লেবুর রসের উপকারিতা ও ব্যবহার বিধি সম্পর্কে ধারণা থাকা একান্ত প্রয়োজন। তবে ব্রণ দূরীকরণে লেবুর রস কিভাবে ব্যবহার করতে হয় তা জানা আছে কি? যদি না জানা থাকে তবে জেনে নিন। কিভাবে ব্রণ দূরীকরণে লেবুর রসের ব্যবহার বিধি।

লেবুর রসের উপকারিতা ও ব্যবহার বিধিঃ

মুখের ব্রণ দূর করার উপায় হিসাবে লেবুর রসের গুরুত্ব অভাবনীয়।এটি আবার মূখের ব্রণ দূর করার ঔষধ হিসাবেও কাজ করে থাকে।নিম্নে ব্রণের সমস্যা দূরীভূত কল্পে লেবুর ব্যবহার বিধি দেওয়া হলোঃ

লেবুর রসঃ

  • স্যাট্রিক এসিড ব্রণ দূরীকরণে অধিক কার্যকারী। তাই লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে স্যাট্রিক।
  • এখন ত্বকের ব্রণ দূর করতে অল্প পরিমাণ লেবুর রস হাতের তালুতে নিয়ে পুরো মুখে লাগিয়ে দিন এবং ব্রণের উপর একটু বেশি করে লাগাবেন।
  • এবার ৫/৭ মিনিট অপেক্ষা করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

লেবুর রস ও দুধঃ

  • সমপরিমাণ লেবুর রস ও দুধ একটি পাত্রে মিশিয়ে নিন। এবার মুখের ত্বকে ভালো করে লাগিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
  • এর ফলে ত্বকের যাবতীয় দাগ দূর করে এবং ত্বকের আর্দ্রাতা ধরে রাখে সক্ষম।

লেবুর রস ও মধুঃ

  • লেবুর রসের সাথে অল্প পরিমাণ মধু মিশিয়ে ভালোভাবে মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
  • এতে ত্বকের ব্রণ দূরীভূত করার পাশাপাশি ব্রণের দাগ ও ত্বকের কালচে ভাব দূর করতে সাহায্য করে।

লেবুর রস ও কমলার রসঃ

  • সমপরিমাণ লেবু ও কমলার রস একটি পাত্রে মিশিয়ে নিন এবং মুখের ত্বকে ভালো করে লাগিয়ে ১৫/২০ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
  • এর ফলে ত্বকের ব্রণ দূর করে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

লেবুর রস ও শসার রসঃ

  • সমপরিমাণ লেবু ও শসার রস একটি পাত্রে মিশিয়ে নিয়ে মুখের ত্বকে ভালো করে লাগিয়ে ১৮/২০ মিনিট অপেক্ষা করে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
  • এর ফলে ব্রণের সকল দাগ দূর করে এবং ত্বকের আর্দ্রাতা ধরে রাখার পাশাপাশি ত্বক নরম ও মসৃণ করে।

(বি:দ্র:- উক্ত ব্যবহার বিধিতে কোন পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া নেই)

“ধন্যবাদ”  
=বাংলা হাউ ডট কম=
((www.banglahow.com))